Sunday, April 21, 2024
No menu items!
HomeBangla newsঅস্ত্র মামলায় আরাভ খানের ১০ বছরের জেল

অস্ত্র মামলায় আরাভ খানের ১০ বছরের জেল

তার বিরুদ্ধে পুলিশ কর্মকর্তা মামুন হত্যামামলার বিচারও চলছে।

অস্ত্র মামলায় আরাভ খানের ১০ বছরের কারাদণ্ড 

স্টাফ রিপোর্টার, বিবিসিনিউজ২৪ ডেস্ক: অস্ত্র আইনে দায়ের করা মামলায় রবিউল ইসলাম ওরফে আরভ খানকে ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেন আদালত। এ ছাড়া ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়। মঙ্গলবার (৯ মে) ঢাকার ৬ নম্বর অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ ও মেট্রো স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল-১৪ এর বিচারক মুরশিদ আহমেদ এ রায় ঘোষণা করেন। সংশ্লিষ্ট আদালতের বেঞ্চ সহকারী আবুল কাশেম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে গত ৭ মে একই আদালত রাষ্ট্রপক্ষ ও আসামিপক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার জন্য আজকের দিন ধার্য করেন। আরভ খান পলাতক থাকায় আজ আদালতে তার পক্ষের কোনো আইনজীবী উপস্থিত ছিলেন না। এছাড়াও মামলায় ২০ জনের মধ্যে ১০ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন আদালত।

অস্ত্র মামলায় আরাভ খানের ১০ বছরের জেল

সুদান থেকে দেশে ফিরলেন ১৩৬ বাংলাদেশি

অভিযোগে বলা হয়, ২০১৫ সালের ২৮ জানুয়ারি আরভ খান তার শ্বশুর সেকেন্দার আলীকে হুমকি দিয়ে মগবাজারে তার শ্বশুর বাড়িতে টাকা আদায় করতে যান। তাকে শ্বশুর বাড়ির সামনে থেকে একটি লোড রিভলবারসহ গ্রেফতার করা হয়। ডিবি পশ্চিমের যানবাহন চুরি প্রতিরোধ ও উদ্ধারকারী দলের তৎকালীন উপ-পরিদর্শক সুজন কুমার কুন্ডু বাদী হয়ে রমনা মডেল থানায় আরভের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা করেন। ২০১৫ সালের ১ মার্চ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবির উপ-পরিদর্শক শেখ হাসান মুহাম্মদ মোস্তফা সরোয়ার আসামি রবিউল ইসলাম আপনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন। একই বছরের ১০ মে রবিউলের বিরুদ্ধে বিচার শুরুর নির্দেশ দেন আদালত। এ মামলায় ২০১৮ সালের ১৪ মার্চ জামিন পান রবিউল। এরপর জামিনে পলাতক থাকায় ২৪ অক্টোবর ২০১৮ তারিখে আদালত তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে।

সম্প্রতি আরাভ খান দুবাইয়ে সোনার দোকান খুললে পুলিশ জানায়, আরভ দেশে রবিউল নামে পরিচিত ছিল। আরভ খানের নামে ভারতীয় পাসপোর্ট নিয়ে দুবাই গিয়েছিলেন তিনি। রবিউলের বিরুদ্ধে পুলিশ কর্মকর্তা মামুন ইমরান খান হত্যা মামলাও দেশে চলছে।

ঢাকার বনানীতে অস্ত্র মামলার চার মাস পর ২০১৮ সালের ৭ জুলাই খুন হন পুলিশের বিশেষ শাখার (এসবি) মামুন। সেই ক্ষেত্রে, ২৫ নভেম্বর, ২০২১-এ আরভকে পলাতক পাওয়া যাওয়ার পরে অভিযোগ গঠন করা হয়েছিল। বাংলাদেশ পুলিশ দুবাইতে সোনার দোকান খোলার সময় আরভকে ফিরিয়ে আনতে ইন্টারপোলের সাহায্য চায় তারপরে ৪ মে, আরভ ফেসবুক লাইভে এসে দাবি করে যে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে . দুবাইয়ে ইন্টারপোল। জেলে ৩৭ দিন পরিবেশন করা হয়েছে. কিন্তু ইন্টারপোলের ওয়েবসাইট অনুযায়ী, ইন্টারপোল কাউকে গ্রেপ্তার করে না, তাদের কোনো কারাগারও নেই। বাংলাদেশ পুলিশের এআইজি (মিডিয়া) মনজুর রহমান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, আরভকে গ্রেপ্তারের বিষয়ে তাদের কাছে কোনো তথ্য নেই।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Trending Post